ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে ঘরে বসে আয় করুন

Growbangladesh-digital marketing

ঘরে বসে আয় করতে হলে ডিজিটাল মার্কেটিং কি জানতে হবে । ডিজিটাল মার্কেটিং  হলো অনলাইনে পন্য বা সার্ভিস এর প্রচারনা করা। আরও সহজে করে বলতে আগে প্রত্রিকায় ad , TV ad, Printing etc করে মানুষকে পন্য বা সার্ভিস মার্কেটিং করা হতো। সেই বিষয়গুলি এখন ডিজিটাল ad দিয়ে মানুষের কাছে সহজে cost কমিয়ে প্রচার করা যায়। কারন প্রতিটি মানুষের কাছেই mobile আছে।  অনলাইনের মাধ্যমে আপনার ব্যবসাকে online মার্কেট প্লেস এ কাজ করতে পারেন। এটা Internate এর বিশেষ আবিস্কার যার জন্য Facebook, Amazon, Ebay, Google বিখ্যাত। আশা করি ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে basic ধারনা clear।। এই ডিজিটাল মার্কেটিং কয়েকটি channel এর মাধ্যমে কাজ করে তা দেয়া হলো:-

Content:

1. পেইড মার্কেটিং

2.  ওরগানিক সার্চ  (SEO)

3.  ইমেইল মার্কেটিং

4.  সোসেল মিডিয়া মার্কেটিং

5.  ইউটিউব মার্কেটিং

আপনি কোন Channel এর মাধ্যমে বিজ্ঞাপন দিবেন। সবার আগে Google paid Ads এর কথা না বললেই নয়। পৃথিবী জুরে যারাই বড় বড় কোম্পানী হয়েছে, সবাই Google ads  এ বিজ্ঞাপন দিয়েছে। আরও আছে Facebook জনপ্রিয় প্রচার মাধ্যম Facebook advertising. পন্য বা Service Locally Sales  এর জন্য ফেসবুক advertising. এর বিকল্প নেই। নিচেই যত ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং হয় তুলে ধরার চেষ্টা।

  • গুগল এ্যড: গুগল এ্যড পৃথিবীর সবচেয়ে বড় সার্চ মাধ্যম। সবার মায়ের চেয়ে একজন মানুষকে নিয়ে গুগল  বেশী কিছু জানে। গুগল এ্যড এ কয়েক ধরনের এ্যড দেয়া হয়, এর মধ্যে সার্চ এ্যড বেশী জনপ্রিয়। তারপর  Youtube টাও জনপ্রিয়। এটাতে সাধারনত সার্চ বেশী হয়, সেলস ভাল হয়। গুগল এ্যড দেওয়ার জন্য সবার আগে আপনাকে keyword search করতে হয়। অর্থাৎ কম্পিটিটির   ad বা যে ধরনের keywords দিচ্ছে সেই ধরনের keywords আপনাকে দিতে হবে। অবশ্যই খেয়াল রাখতে হবে একটি ভালো keyword একটি company কে কোটি টাকা আয় করে দিতে পারে।
  • Facebook Ad: Facebook Ad গুলো খুব জনোপ্রিয় যারা পন্যকে facebook page এর মাধ্যমে ad দেয়। বিশেষ করে Alibaba, Amazon সবাই সবসময় তাদের পন্যকে facebook ad  দিয়ে থাকে. এই facebook ad দিতে হলে কোন location বা zone আপনার পন্য বা সার্ভিস sell হতে পারে সেটি খুব উল্লেখ্যযোগ্য। কারন facebook আপনার পন্যকে sell করে দিবে না সে শুধু মানুষের মধ্যে নিয়ে দিবে। মিনিমাম ৩ ডলার প্রতিদিন দিয়ে facebook ad শুরু করতে পারেন। এখানে ad content ও image অবশ্যই  সবচেয়ে ভালোমানের হওয়া দরকার। ভালো যা সহজেই বুঝতে পারে। তাহলেই আপনার ROI থাকবে। 
  • Pinterest ad: অনেকটা Google search ad এর মত কাজ করে। বেশী এডভাঞ্চ  জানতে চাইলে youtube থেকে জেনে নিন।
  • ঘরে বসে আয় Facebook ad আসলে সেল হবেই। আসলে অত সহজ না এই Facebook ad কারন অনেকেই আছে লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করছে প্রতিদিন sales পাচ্ছে না। আবার ভালো communicate করলে অল্প টাকাতেই বেশী sales করা যায়। Facebook ad   সাধারনত Boosting বলা হয়। আমার বেসিক কারনটা দেওয়াটাই হলো । কারন এটা অনেক বিশাল advance level গুলো নিয়ে অন্য Blog এর মধ্যে বিস্তারিত বলা হবে।
  • টুইটার এ্যড: টুইটারের জন্য বিদেশীদের জন্য অনেক ভালো। সেলিভের্টিরা বা বড় বড় রাজনীতিবীদ থেকে শুরু করে নায়ক নায়িকাদের কাছে পপুলার। অনেক সময় একটি text message নিয়ে অনলাইনে বের হয়। আর এই টুইটারে ad দিয়ে আপনার পন্যকে প্রচার করতে পারেন।বাংলাদেশের জন্য এটি বেশী জনপ্রিয় না। কারন টুইটার ad থেকে ফেসবুক এ্যড  বেশী ভালো।

ওরগানিক সার্চ  (SEO)

ঘরে বসে আয় করতে আগে জানতে হবে। SEO কি? একটি ওয়েব সাইট কে গুগল এর প্রথম ১০ এর ভিতরে আনার জন্য যে পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়, সে টাকে SEO । 

Google ১-১০ এর মধ্য আনতে পারলেই বাজিমাত। কিন্তু এর সাথে ভালো Title না হলে  visitor আপনার page এ আসবে না। তার জন্য উন্নতমানের Title, Meta Description লাগবে।

প্রথমমত আপনার website content  সব ঠিকঠাক হলে এখন Google কে জানতে হবে। সেই জন্য আপনার page টাকে google search console a index  করতে হবে।

  • Google search console : সব ধরনের ওয়েব সাইট কে গুগলে আনার জন্য গুগল সার্চ কঞ্চল ব্যবহার হয়। 
  • টাইটেল : আপনার ওয়েব সাইট গুগল এ যখন দেখবেন URL এর পরে একটা লাইন থাকে ওটাই হল টাইটেল । এটা ভাল না হলে কেউ সাইট এ আসবে না ।
  • Meta Description : এবার সুন্দর ভাবে Meta description গুলো দিবেন, যাতে মানুষ সহজেই আপনার website  এ আসতে interest feel হয়।
  • Content Optimise:  পুরো web সাইটের মধ্যে যত ধরনের seo Technic আছে, সব চেয়ে ভালো হল Content  । যার যত ভাল Content সে SEO te দ্রুত ভাল করতে পারে। Content হল কিং। content এর মধ্যে যে ধরনের ইমেজ আছে, তা অত ভালো করে optimise করলে তা  হালকা হয়। 
  • Keyword Research: Keyword Research এ সবচেয়ে গুরুত্তপূর্ণ হলো সেলস keyword । অর্থাৎ একটি ভালো মানের Keyword  দিয়ে কোটি কোটি টাকা এনে দিতে পারে। অতএব keyword বিষয়টি অনেক দরকার। ভালো করে keyword research এর  জন্য পেইড টুলস ব্যবহার করতে হবে।
  • Yoast SEO Set Up: ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের জন্য সার্চ করুন  ও ইন্সটল করুন। । আমি recomad করব প্রথমে free ব্যবহার করতে তারপর কাজের চাহিদা অনুযায়ী পেইড টা ব্যবহার করতে। 

Off Page SEO কি: on page seo তে ইন্টারনাল বিষয় গুলি নিয়ে কাজ করা হয়। আর অফ পেইজ এস ই ও হল লিঙ্ক নিয়ে কাজ। আরও সহজ করে বললে – বিভিন্ন জায়গাতে লিঙ্ক দিয়ে আসতে পারলে ও কীওয়াড গুল সহজে রেঙ্ক করবে। ভিজিটর কিভাবে আসবে একটি ওয়েব সাইটে এটা ওফ পেজ এস ই ও এর উপর নির্ভর করে। 

  • ব্লগ – web page এর মধ্যে বেশী গুরুত্তপূর্ণ Blog অর্থ্যাৎ একটি web সাইটে blog থাকা দরকার। সেই blog  টিতে ৩/৫টি content ব্যবহার করতে হবে। তা আবার minimum ১৫০০-২৫০০ words এর মধ্যে must থাকতে হবে। বেশী গ্রহণ যোগ্য হতে ২০২০ details content লাগে । অর্থাৎ ভালো content এর বিকল্প নেই।Digital  এর যুগে অবশ্যই content কে সবার মধ্যে প্রকাশ করার জন্য blog best.
  • ফোরাম পোস্ট: বিভিন্ন মাধ্যমে আপনি ফোরাম পোস্ট করতে পারেন। এই ফোরাম পোস্ট এর আটিকেল গুল আকর্ষণ করতে পারে আমন হতে হবে। 
  • আর্টিকেল: আর্টিকেল হলো ২য় আরেকটি ড়ভভ off page বা  Ranking এর মধ্যে সেরা পদ্ধতি। বিভিন্ন জায়গায় আর্টিকেল সাবমিশণ করলে ২০২০ তে ভাল কাজ করে অফ পেজ এস ই ও তে। । আর্টিকেল যেনো  ইউনিক হয়। যদি আটিকেল গুল খুব ডিটেইলস থাকে খুব সহজে রেঙ্ক হয়।
  • সোসাল মিডিয়া- বিভিন্ন সোসাল মিডিয়াতে facebook, Twitter, Linkedin, instagram etc, profile  বা পেজ তৈরীর মাধ্যমে ব্রান্ডডিং করতে পারেন। 
  • গেস্ট  পোস্টঃ   গেস্ট  পোস্ট সব চেয়ে জনপ্রিয়। বিভিন্ন সাইট যা আপনার ওয়েব পেজ এর সাথে মিলে যায়। সেই সব ওয়েব পাইজ এ আপনি  content দিয়ে একটি লিঙ্ক নিতে পারেন এটাই হল গেস্ট পোস্ট।
  • Social Bookmarking: Social Bookmarking এর জন্য প্রচুর DA/PA ভালো সাইটে কাজ করতে পারেন।
  • ডিরেকটরী সাবমিশন : ডিরেকটরী সাবমিশন করলে আপনার ওয়েব লিঙ্ক বারবে । ওনেকেই ঠিকানা খুজে আপনার ওয়েব সাইতে আসবে।

ইমেইল মার্কেটিং

ঘরে বসে আয় করতে ইমেইল মার্কেটিং হল ডিজিটাল মার্কেটিং এর আর একটি জনপ্রিয় মাধ্যম । বর্তমান ওয়ার্ল্ড এ ইমেইল ব্যবহার করেনা আমন মানুষ নেই। আর যারা এখনও ইমেইল অ্যাকাউন্ট করেন নাই তারা ইন্টারনেট থেকে দূরে আছেন। ডিজিটাল মার্কেটিং ত অনেক দুরের কথা। 

কার ইমেইল আছে কমেন্স করে বলুন।

ইউটিউব  চ্যানেল মার্কেটিং

ঘরে বসে আয় সব চেয়ে সারা জাগান ইউটিউবার বাংলাদেশ এ অনেক আছে। কিন্তু আমি ইউটিউব দিয়ে মার্কেটিং কি ভাবে করা যায় তার প্লানিং টা বলছি। যে কোন থিমে কাজ করতে পারেন । সপ্তাহে ৩/৪ টি ভিডিও আপ করতে হবে। যদি এটা পারেন তো ইউটিউব তা আপনার জন্য। ভাল করতে পারলে অনেক টাকা ঘরে বসে আয় করতে পারবেন ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *