৮ টি টিপস – How to Make Online বিজনেস প্লান – নইলে ধরা

৮  টি টিপস –  How to Make  Online বিজনেস প্লান – নইলে ধরা

বিজনেস শুরু করার আগে আপনাকে এই বিষয় গুলি নিয়ে ছিন্তা করতে হবে।     how to মেক  মানি ফ্রম অনলাইন । সত্যি অনেক কটিন আবার শহজ । জানতে হবে বিজনেস প্লান্নিং মেকিং ফরমুলা। আর না জানলে পুরাটাই লস সব কিছু হারাবেন । টাকা হারালেউ পাবেন কিন্তু টাইম যা আর আসবে না আপনার লাইফে। 

How to Make  Online বিজনেস প্লান 

1. একটি ব্যবসায়িক সংক্ষিপ্তসার

2. লক্ষ্য সেট

৩.বাজার বিশ্লেষণ

৪. পরিচালনা কাঠামো

৫ সারভিস / পণ্য

৬. Marketing & Salesকৌশল

৭. বাজেট (মাসিক এবং বার্ষিক)

৮ বাস্তবায়ন-Execution

একটি ব্যবসায়িক সংক্ষিপ্তসার 

সবার প্রথম ব্যবসা শুরু করতে গেলেই সবার আগে যে কাজটি করতে হয় । সেটা হলো একটি ব্যবসায় সংক্ষিপ্তসার আপনাকে লিখে ফেলতে হবে । যদি আপনি সুন্দর সুপার কোয়ালিটির একটা বিজনেস প্লান করতে চান । আপনি এই বিজনেসটা আসলে – আপনি প্লান অনুযায়ী কিভাবে বিজনেস করতে চাচ্ছেন। 

তার একটা সংক্ষিপ্ত বিবরণ সামারি । আপনি বলতে পারেন , আপনাকে সুন্দরভাবে শট সামারি করতে হবে । আমার এটা দেখে বুঝা যায় আপনি বিজনেস কিভাবে করবেন । বিস্তারিত জাস্ট একটা কত টাকা বাজেট সবকিছু মিলে একটা সময় তৈরি করতে হবে। যা দেখলেই পুরা বিজনেস আইডিয়াটা পাওয়া যায়।

লক্ষ্য সেট

International-money-growbangladesh

লক্ষ্য সেট বিজনেসে আরেকটি ইম্পর্টেন্ট ।  কারণ হচ্ছে বিজনেস এর কাজই হলো টাকা ইনকাম করা । অনলাইএ  টাকা ইনকাম করতে গেলে আপনাকে লক্ষ সেট করতে হবে অর্থাৎ গুগোল সের্চ এরকম হতে পারে আপনার প্রাইভেসি নিয়ে পরে আপনি কোম্পানি থেকে আপনি কত টাকা ইনকাম করতে চান আপনার কোম্পানিতে আপনি কোথায় দেখতে চান কতজন কোথায় দিতে চান তবে আপনাকে পৌঁছাতে হবে তার জন্য সেটা পরিবর্তন হতে পারে আপনার উপরে সবকিছুর উপরে কিন্তু শুরুতেই আপনাকে একটা গোলাপ করে রাখতে হবে যদি আপনি না করেন তাহলে আপনি আপনি গন্তব্য স্থানে আপনার মেইন জায়গায় আপনি কখনোই পৌছাতে পারবেন না . 

সেজন্য আপনি কোন জায়গায় পৌঁছাবে তার একটা অনুযায়ী পরবর্তীতে বাস্তবায়ন এবং চেষ্টা চেষ্টা কারণে আপনি ওই জায়গায় পৌঁছাতে পারবেন মনে রাখবেন যদি কোন ঠিক না থাকে এবং কোন জায়গায় গিয়ে থামবে তা কখনোই ওই নির্দিষ্ট জায়গায় পৌঁছাতে পারে না সেরকম আপনি চলে আসবেন

মার্কেট এনালাইসিস

আপনাকে সুন্দর মতন জানতে হবে যত ভালো করে Maket analysis করতে পারবেন , ততই আপনার চলার পথ আরো সহজ হয়ে যাবে। অতএব Competitor মার্কেট বাজার বিশ্লেষণ ইম্পর্টেন্ট বিজনেসের জন্য ।

পরিচালনা কাঠামো

পরিকল্পনা এখানে আপনি পেয়ে যাবেন এ দিয়ে আপনি অবশ্যই বিজনেসে অনেক হেল্প করবে । বিশেষ প্ল্যানিং করার ক্ষেত্রে ম্যানেজারিয়াল ইম্পোর্টেন্ট জিনিস আপনি একা পরিচালনা করবেন না আর ম্যানেজমেন্ট বিজনেস ।

প্রোডাক্ট ও সার্ভিস 

আপনি কন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে কাজ করবেন তা আপনি ভাল বুজবেন আপ্নের অভিগতার আলকে। আমার জানা মতে যে প্রোডাক্ট বা সার্ভিস মাকেটিং করে বেশি সেল করা যায় সেই ধরনের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে বিজনেস শুরু করলেই লাভ অর লস লস আর লস । তিন মাস বিজনেস করার পর বুসজবেন বিজনেস আ তাকা আশে না শুধু টাকা চলে যায়। 

সেই জন্য আপনাকে জানতে হবে 

  • কেন এই সার্ভিস বিজনেস শুরু করবেন
  • কারা এটি কিনবে 
  • কেন কিনবে
  • আর কারা এই বিজনেস করে 
  • কিভাবে করে 
  • প্রোডাক্ট কিভাবে তেরি করে 

এক  কথায় বাজারে যার চাহিদা নেই – তার জন্য নতুন করে বিজনেস করে লাভ নাই। অতএব আপনাকে এমন একটি প্রোডাক্ট বা সার্ভিস নিয়ে শুরু করুন যা ্সবার লাগে সব সময়।

বাজেট

আপনি আস্তে আস্তে বিজনেসটা আরো অনেক ভালো করতে পারবেন এক্সপেন্স করবেন । বাজেট পেশ করবেন এবং সীমান্ত সেই ক্ষেত্রে আমি আগেই বলে মস্টার প্লানিং এর মধ্যে আপনাকে বাজেট তৈরি করুন যে আমি এটা কাজ করবে ।

এক্সিকিউশন অথবা বাস্তবায়ন

ভাল কিছু পেতে গেলে আপনাকে বাস্তবায়ন করতে হবে যা আপনের মাথাতে আছে । তা সতিক পাবে কাজে লাগাতে হবে। তা না হলে পুরাটাই লস।

শেয়ার করো লাইক করো এবং তো ফ্রেন্ডদেরকে মেসেজ করো হোয়াটসঅ্যাপে পাঠাও। তাদের উপকার হবে আর এই বিয়ের উদ্দেশ্য হল ব্লগ পড়ার পরে যদি বাংলাদেশের মধ্যে যদি কিছু পরিবর্তন আসে। ভালো কাজ করে এবং অনলাইন বিজনেস করে । সারা বাংলাদেশে তাদের ফ্যামিলি ভালো থাকবে । এই উদ্দেশ্য নিয়ে রাত জেগে জেগে কাজ করা শুধু তোমাদের জন্য।

বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সারদের তিনটি মার্কেটপ্লেস

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *